বাংলা ব্যাকরণ কি?

বাংলা ব্যাকরণ ও ব্যাকরণ পাঠের গুরুত্ব

ব্যাকরণ কী?

ব্যাকরণ একটি সংস্কৃত শব্দ। যা ভাঙলে দাঁড়ায় ‘বি+আ+ ক্রি+অন’। ব্যুৎপত্তিগত অর্থে যার অর্থ্ হচ্ছে বিশেষভাবে বিশ্লেষণ। ভাষাকে বর্ণনা করে বা বিশ্লেষণ করে তা দেখবার চেষ্টা থেকেই ব্যাকরণের জন্ম। এ এদিক থেকে ব্যাকরণকে ভাষার সংবিধানও বলা হয়।

ব্যাকরণের সংজ্ঞাঃ

যে শাস্ত্রে কোন ভাষাকে সম্যক বিশ্লেষণ করে ভাষার গঠন প্রকৃতি ও স্বরুপকে চিনিয়ে দেয়; তাকে শুদ্ধভাবে বলতে, পড়তে, লিখতে ও প্রয়োগ করতে শেখায় তাকে ব্যাকরণ বলে। অর্থাৎ ব্যাকরণ ভাষার বিশ্লেষণ, প্রকৃতি, প্রয়োগরীতির স্বরুপ আলোচনা ও ব্যাখ্যা করে এমন শাস্ত্র। তাছাড়াও ধ্বনি কীভাবে উচ্চারিত হয়, ভাষা কীভাবে গঠিত ও রুপান্তরিত হয় এবং শব্দ কীভাবে বিন্যস্ত হয়ে বাক্য তৈরি করে ব্যাকরণ এ তিনটি বিষয় পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ করে।

ড. সুনীতি কুমার চট্রোপাধ্যায়- এর মতে, “যে শাস্ত্র দিয়ে কোন ভাষাকে বিশ্লেষণ করে তার স্বরুপ; গঠন-প্রকৃতি ও প্রয়োগরীতি বিশেষভাবে নির্ণয় করা যায় তাকে ব্যাকরণ বলে।”

ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ-এর মতে, “যে শাস্ত্র জানিলে বাঙলা ভাষার শুদ্ধরুপ লিখিতে, পড়িতে ও বলিতে পারা যায় তাকে বাঙলা ব্যাকরণ বলে।”

ড. হুমায়ুল আজাদ-এর মতে “এখন ব্যাকরণ বা গ্রামার বলতে বুঝায় এক শ্রেণির ভাষা বিশ্লেষণাত্নক পুস্তক; যাতে সন্নিবিষ্ঠ হয় বিশেষ বিশেষ ভাষায় শুদ্ধ প্রয়োগের সৃত্রাবলি।”

Related posts:

Leave a Reply